কিছু কথা

“কিছু কথা ”

আমি তোমাকে আমার নিজের থেকেও অনেক বেশি ভালোবাসি। বিলিভ মি! এই পৃথিবীতে তুমি ছাড়া আর অন্য কারোর প্রেমে পড়া তো দূরে থাক। তোমার জায়গায় অন্য কাউকে কল্পনাও করতে পারিনা। আমার কাছে তোমার বিকল্প একমাত্র তুমিই। তোমার থেকে হয়তো দূরে থাকতে পারবো। কিন্তু তোমাকে ভুলে যেতে কিংবা তোমার থেকে নিজেকে লুকিয়ে রাখতে কখনোই পারবো না। কখনো দুষ্টুমির ছলে লুকোতে চাইলেও আমার ঠিকই মনে পড়ে তোমার ঐ দুটি চোখ এই বুঝি আমাকে খুঁজছে। তাই আর লুকোনো হয়না। আমি অনেক ডমিনেটিং পার্সন তাইনা? এটা করতে পারবেনা। সেটা করতে পারবেনা। এটা এক্ষুনি করো। তার সাথে কেন? কথা বললে। আমি বারণ করা সত্বেও সেখানে কেন? গেলে। আরও কত শাসন। তোমার কাছে যেটা শাসন ডমিনেট আমার কাছে সেটা কেয়ার ছিলো। যাইহোক,
তুমি শেষমেষ বলেছিলে- আমি তোমার স্বাধীনতা কেঁড়ে নিয়েছিলাম। কথা বলতে কিংবা মিশতে দেইনি কারোর সাথে। যতই কাজ থাকুক তুমি না চাইলেও তোমার থেকে প্রচুর সময় নিয়েছিলাম। আমার জন্যে তুমি সিরিয়াল দেখা বিসর্জন দিয়েছিলে। ফেসবুকে তোমার ফ্রেন্ডলিস্টে শুধু আমিই ছিলাম। তোমার আইডির পাসওয়ার্ডটাও আমার কাছেই ছিল।
আমি ফোর্স করতাম ১২টার মধ্যে গোসল দিতে। পাশের বাসায় যাওয়া গল্প করা আড্ডা দেয়া আমার পছন্দ ছিলোনা বলে। দুপুরবেলা না ঘুমিয়ে তুমি পাশের বাসায় যেতে কিংবা পাশের বাসার কেউ তোমার সাথে গল্প করতে আসতো। অসুস্থ হলে তুমি ঔষধ খেতে চাইতানা। আমি রেগে গেলে তুমি ঔষধ খেতে কিংবা না খেয়েও বলতে খেয়েছি। তোমার পিরিয়ড ডেটটা তুমি ভুলে যেতে বরাবরই। আমিই মনে করিয়ে দিতাম। আমার জন্যে শীতের রাতেও তুমি শাড়ি পড়েছিলে। আমি না ঘুমোলে তুমিও ঘুমোতে চাইতেনা। প্রতিদিন ঘন্টার পর ঘন্টা কথা হতো দেখা হতো আমাদের। কিন্তু আজ দুটো মাস কেটে গেলো কোনো যোগাযোগ নেই আমাদের। আমি জানিনা তুমি হঠাৎই কেন? মুক্তিকামী হয়ে উঠলে। আমিও ছিলাম সহজ-সরল। তোমার সাথে সন্ধি করে নিজের কাছে রাখতে চেয়েছিলাম তোমায়। কিন্তু আমি নিরস্ত্র ভেবে তুমি স্বাধীন হয়ে গেলে। স্বাধীনতা অর্জন করেছো সহজেই। আমি চাইলেই তোমার মন দখল করে নিতে পারতাম ইনফ্যাক্ট,
এখনো পারি। আমি অনেক শান্তিপ্রিয় যুদ্ধে জড়াতে চাইনি। কিন্তু বারবার সন্ধি করতে গিয়ে তুমি যখন বললে আর ফিরতেই চাওনা আমার সাথে। তখন আমি আর এগোইনি। তোমাকে তোমার মতই ভালো থাকতে দিয়েছি। তুমি এখন স্বাধীন। নিজের ইচ্ছেগুলো এখন তোমার হাতের মুঠোয়। ফোর্স কিংবা বাঁধা দেয়ার কেউ নেই। জানি, আমাকে নিয়ে তোমার মনে হাজারো অভিযোগ জমে আছে। এটাও জানি, তোমার ভালোলাগায় আমি অপ্রিয়। আমি না থাকায় তোমার কিছু যায় আসেনা। যাইহোক, মুক্তির স্বাদ নিয়ে ভালো থাকো তুমি এমনটাই আমার প্রত্যাশা। আমি ভারাক্রান্ত মন আর তোমার ফেরার প্রতীক্ষা নিয়েই নিজের মৌন-রাষ্ট্রের উন্নয়নের চেষ্টা করে যাচ্ছি। ফিরতে চাইলে সবসময় স্বাগতম। আমিতো জাস্ট তোমারই আর তুমি শুধুই আমারই।

received_505360133959993.jpeg

এম.এস আরিফ

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top